বিপথগামী ৩৪ জলদস্যুর আত্মসমর্পণ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে অস্ত্র গোলাবারুদ জমা

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্ক:

সুন্দরবন ও মহেশখালীর পর এবার জলদস্যুতা ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে আত্মসমর্পণ করেছেন চট্টগ্রামের বাঁশখালি-পেকুয়া উপকূলের বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যরা। যারা একসময় দাপিয়ে বেড়াত নোয়াখালীর হাতিয়া থেকে কক্সবাজারের টেকনাফ পর্যন্ত পুরো উপকূলে।

বাঁশখালী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) দুপুরে চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের হাতে অস্ত্র তুলে দিয়ে আত্মসমর্পণ করছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত ছয় জন সহ ৩৪ জলদস্যু। জমা দিয়েছেন তাদের ব্যবহৃত অস্ত্র ও গোলাবারুদ।

জলদস্যুদের আত্মসমর্পণের বিষয়টি মধ্যস্থতা করছেন বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল এশিয়ান টিভির সাংবাদিক আকরাম হোসাইন।

বাঁশখালী, মহেষখালী, কুতুবদিয়া ও চকরিয়া এলাকার উপকুলের মানুষদের আতংক সাগরের ত্রাস বাইশ্যা ডাকাত বাহিনীর ৩ জন, খলিল বাহিনীর ২ জন, রমিজ বাহিনীর ১ জন, বাদশা বাহিনীর ৩ জন, জিয়া বাহিনীর ২ জন, কালাবদা বাহিনীর ৪ জন, ফুতুক বাহিনীর ৩ জন, বাদল বাহিনীর ১ জন, দিদার বাহিনীর ১ জন, কাদের বাহিনীর ১ জন, নাছির বাহিনীর ৩ জন এবং অন্যান্য আরও ১০ জন সহ মোট ৩৪ দস্যু স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে অস্ত্র তুলে দিয়ে আত্মসমর্পণ করছেন।

এসময় জলদস্যু বাহিনীর সদস্যরা জমা দিয়েছেন ৯০টি দেশি-বিদেশি অস্ত্র, ২ হাজার ৫৬ রাউন্ড গুলি ও কার্তুজ।

র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি শামসুল হক টকু, চট্টগ্রাম-১৬ আসনের সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, কক্সবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিন, আইজিপি বেনজির আহমেদ, চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি আনোয়ার হোসেন সহ বিভিন্ন পর্যায়ের উর্ধ্বতন প্রশাসনিক কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

চট্টগ্রামের সবচেয়ে বেশি ডাকাতপ্রবণ উপকূলীয় এলাকা বাঁশখালী ও পাশের পেকুয়া, মহেশখালী এবং কুতুবদিয়াসহ মিলে বিশাল সাগর উপকূলে একাধিক জলদস্যু বাহিনীর দাপটে বহুদিন ধরে অতিষ্ঠ ছিল জেলেরা। খুন, অপহরণ, লুটপাটের ঘটনা নিত্যদিনকার। ফলে হাজারও জেলে একপ্রকার জিম্মি ছিল।

তবে শেষপর্যন্ত র‍্যাবের দীর্ঘদিনের চেষ্টা ও সাংবাদিক আকরাম হোসাইনের মধ্যস্থতায় অন্ধকার ছেড়ে আলোর পথে এসেছে জলদস্যুদের একটি বড় অংশ।

মতামত