বালুখালি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অগ্নিকাণ্ডে অন্তত সাত জনের মৃত্যু, এখনো উড়ছে ধোঁয়া

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্ক:

কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের অগ্নিকাণ্ডে শত শত বাড়িঘর পুড়ে যাওয়ার ঘটনায় অন্তত সাত জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে দমকল বাহিনী।

দমকলের চট্টগ্রাম নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, রাত একটার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও এখনো ধোঁয়া উড়ছে এবং সেখানে দমকলের তিনটি ইউনিট এখনো কাজ করছে।

“আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও এখনো অনেক জায়গা থেকে ধোঁয়া উড়ছে। আমাদের টিমগুলো এখনো ধ্বংসস্তূপ সরানোর কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। স্থানীয়রা তাদের ঘর পরিষ্কার করার কাজ শুরু করেছে,” ওই ক্যাম্প থেকে জানাচ্ছিলেন ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ।

তবে তিনি বলছেন হতাহতের সংখ্যা নির্ধারণ কিংবা এই আগুনে কি পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা নিরূপনে তদন্ত কমিটি কাজ করবে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গতকাল বিকেল চারটার দিকে আগুনের সূত্রপাত হয় এবং এরপর কয়েক ঘণ্টা ধরে এ আগুনে পুড়ে যায় রোহিঙ্গাদের শত শত ঘর।

শুরুতে স্থানীয়রা আগুন নেভানোর চেষ্টা করলেও তা না কমে বরং ছড়িয়ে পড়ে আশেপাশের এলাকায়।

খবর পেয়ে দমকলসহ নানা সংস্থার লোকজন ছুটে গেলেও আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে মধ্যরাত হয়ে যায়।

শেষ পর্যন্ত রাত একটা নাগাদ আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসে বলে নিয়ন্ত্রণকক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

যদিও এখনো পুড়ে যাওয়া বহু ঘর থেকে ধোঁয়া বের হচ্ছে।

সকাল থেকে ঘটনাস্থলে থাকা স্থানীয় সাংবাদিক ওবায়দুল হক চৌধুরী বলছেন, লোকজন ঘরবাড়ি পরিষ্কারের কাজ শুরু করেছে কিন্তু কিছু জায়গায় এখনো টুকটাক আগুন দেখা যাচ্ছে।

ওই ক্যাম্পের অধিবাসী সৈয়দ আলম বিবিসি বাংলাকে বলছেন, তার ঘর যেই ব্লকে সেটি সহ অন্তত ১২৬টি ব্লক পুরো পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

এসব ব্লকের কোনটিতে ১৩০, কোনটিতে ১৬৫, কোনটিতে ১৯০ টি করে পরিবার বসবাস করে আসছিলেন বলে জানান তিনি।

আমার ঘরবাড়ি সব পুড়ে গেছে। সব সাফ হয়ে গেছে। কিছু নাই এখানে। হাজার হাজার ঘর ছাই হয়ে গেছে। কোন কিছু বের করতে পারিনি ঘর থেকে। পুরো এলাকার চিত্রই এমন, বলছিলেন তিনি।

মতামত