সোনাকানিয়া ইউপি নির্বাচনে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন স্বতন্র প্রার্থী মাস্টার আবু তাহের

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্ক:

আসন্ন ৭ ফেব্রুয়ারি সপ্তম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার ১৬টি ইউনিয়নের মধ্যে সোনাকানিয়া ইউনিয়নে এবার জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মাস্টার আবু তাহের। এলাকার সাধারন নারী-পুরুষ ভোটাররা এ ধরনের মন্তব্য করছেন।

সাবেক এলডিপি নেতা এবার ক্ষমতাসীন দলের নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করছেন। বিগত দিনে যিনি তাহার ওয়ার্ডে মেম্বার পদে নির্বাচন করে জামানত হারিয়েছিলেন। তাই এবার এলাকার সাধারন ভোটাররা পাওয়া না পাওয়ার সমীকরণ নিয়ে চুলছেড়া বিশ্লেষন করছেন।

সরকার দলীয় প্রতীক নৌকা নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নামলেও এলডিপি জসিম জয়ী হওয়ার স্বপ্ন দেখলেও তার আশায় ছাই ঢেলে দিবেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মাস্টার আবু তাহের। স্বতন্ত্র হিসেবে এলাকাবাসীর পিড়াপিড়িতে অবশেষে চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছেন তিনি। মাস্টার আবু তাহের সোনাকানিয়ার গারাংগিয়া গ্রামের ঐতিহ্যবাহী পরিবারের মরহুম আবদুল করিমের মেঝ ছেলে। পারিবারিকভাবে ঐতিহ্যমন্ডিত পরিসরে বড় হলেও সমাজের একেবারে নিম্নশ্রেনি থেকে উচ্চ শ্রেনি সকলের সাথে তার গলায় গলায় খাতির।পুরো পরিবারের সদস্যরা শিক্ষকতার পেশায় থাকলেও তিনি একেবারে মাটির মানুষ বলে মন্তব্য করেছে এলাকাবাসী।

অনেকে বলেছে, মানুষের সাথে ওতপ্রোতভাবে মেলামেশা, সমাজ ও মানব সেবা তার পারিবারিক শিক্ষা। তার দাদা মরহুম পুতন আলী এলাকার সর্বজন সম্মানিত ব্যাক্তি ছিলেন।

মাস্টার আবু তাহের একাধারে মেম্বার পরে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে সোনাকানিয়া এলাকায় বিদ্যুতায়ন,
রাস্তাঘাট,খাল ভাঙ্গন রোধ, স্কুল ও মাদ্রাসা নির্মাণে সহায়তা করে এলাকার সর্বজন শ্রদ্ধার পাত্র পরিনত হন। স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নিজে একজন শিক্ষক হলেও এলাকার আম জনতার সাথে তাদের নাড়ির নীবিড় সম্পর্ক রয়েছে। এলাকার মানুষের শিক্ষাদীক্ষার উন্নয়ন ও ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান পালনের জন্যই তাহার অবদান দৃষ্টান্তমুলক ।ঐতিহ্যের ধারা বজায় রেখে তারা এখনো যৌথ পরিবারে বসবাস করছেন।

মাস্টার আবু তাহের এর অন্যান্য ভাই-বোন এবং আত্মীয় স্বজন সকলেই উচ্চ শিক্ষিত ও আর্থিকভাবে প্রতিষ্ঠিত। তাদের পরিবারের সদস্যদের মধ্যে রয়েছে কলেজ শিক্ষক, মাদ্রাসা শিক্ষক, প্রাইমারি শিক্ষক, সাংবাদিক, ডাক্তার, ইন্জিনিয়ার, ব্যাবসায়ী ও প্রবাসী।তিনি নিজেও একজন উচ্চ শিক্ষিত ব্যক্তি।দীর্ঘ ২৫ বছর যাবৎ তিনি শিক্ষকতা করে যাচ্ছেন।

সবকিছু হিসাব করে সকল দিক বিবেচনা করলে মাস্টার আবু তাহের নির্বাচনী বৈতরনী পার হওয়া অনেকটা সহজ হবে বলে এলাকবাসী মনে করেন। তদুপরি জনপ্রিয়তার দিক থেকেও বর্তমানে তিনি শীর্ষে বলা চলে,তাহার ধারে কাছে কেউ নেই।

সরেজমিন সোনাকানিয়া ইউনিয়ন ঘুরে ও সমাজের সর্বস্তরের জনগণের সাথে কথা বলে জানা যায়,মাস্টার আবু তাহের মেম্বার থাকালীন সময়ে নিজ ওয়ার্ড ছাড়াও ইউনিয়নের ৯ ওয়ার্ডের সর্বত্র সুনামের সাথে বিচারকার্য সম্পন্ন করে সমাজসেবা করেছেন। ডাকাত নিয়ন্ত্রন করে তিনি কুড়িয়েছেন যথেষ্ট খ্যাতি। পরে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান থাকাকালে তিনি আরো নব উৎসাহে সমাজ ও জনগণের সেবায় সর্বশক্তি দিয়ে মাদক ও ইভটিজিং প্রতিরোধে কাজ করেছেন।যা পুরো সাতকানিয়াই বিরল। তারই স্বীকৃতিস্বরুপ তিনি পেয়েছেন বিভিন্ন সংস্থা থেকে সম্মাননা পুরুস্কার। ইনশাআল্লাহ এবারও তিনি নিশ্চিত বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন।

এ বিষয়ে মাস্টার আবু তাহের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, সোনাকানিয়ার জনগণ যখন ন্যায্য পাওনা থেকে রীতিমত বঞ্চিত হচ্ছে ঠিক এমনি সময় হাজার হাজার লোক আমাদের বাড়িতে এসে আমাকে চাপাচাপি করে, আমি উপায়ান্তর না দেখে তাদের আশার প্রতিফলন ঘটাতে নির্বাচনে অংশ নিতে সম্মত হয়েছি। সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে অদ্য তারিখ পর্যন্ত আমার পকেট থেকে কোন প্রকার কানা কড়ি খরচ করতে হয়নি। এলাকাবাসীরা নিজ উদ্যোগে সমস্ত নির্বাচনী খরচ বহন করছেন। সকলের উৎসাহ দেখে আমি আনন্দিত এবং আশাবাদী। আমার মার্কা আনারস। এলাকাবাসী তাহাদের ভোটাধিকার সঠিকভাবে প্রয়োগ করতে পারলেই আনারসের বিজয় সুনিশ্চিত। বাকী আল্লাহর ইচ্ছার উপর নির্ভর করছে।

মতামত