নানা কর্মসূচিতে শেখ রাসেল শিশু প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্কঃ

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়াধীন সমাজসেবা অধিদফতর পরিচালিত চট্টগ্রাম শেখ রাসেল শিশু প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মধ্যেদিয়ে ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ’২০২২ পালন করা হয়েছে।

কেন্দ্রের উপপ্রকল্প পরিচালক জেসমিন আকতার এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে ২১ ফেব্রুয়ারি রোজ সোমবার এ উপলক্ষে ভোর ৬:০০ টায় কালো ব্যাজ পরিধান ও জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করা হয়। সকাল ৭:০০ টায় কেন্দ্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ নিবাসী শিশুদের নিয়ে প্রভাতফেরীতে অংশগ্রহণ করেন এবং শিশুদের নির্মিত শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। সকাল ৯:০০ টায় কেন্দ্র মিলনায়তনে নিবাসী শিশুদের অংশগ্রহণে পবিত্র কোরআনখানি অনুষ্ঠিত হয়। অতঃপর দেশাত্মবোধক গান, কবিতা আবৃত্তি এবং মাতৃভাষা ও ভাষা আন্দোলন নির্ভর চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এরপরে সকাল ১১:০০ টায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন চট্টগ্রাম হাটহাজারী উপজেলার ১নং ফরহাদাবাদ ইউনিয়ন জামে মসজিদের সম্মানিত ইমাম মোঃ সরোয়ার ফরহাদ। সকাল ১১:৩০টায় আয়োজন করা হয় একুশের গল্প বলা, আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠান।

কেন্দ্রের আউটরিচ ওয়ার্কার বিপুল চন্দ্র পাল এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তাবৃন্দ ভাষা আন্দোলনের পটভূমি স্মৃতিচারণ করে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। এছাড়াও শিশুদের শুদ্ধভাবে বাংলাভাষা লেখা ও বলার প্রতি গুরুত্ব প্রদান করে ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস এর তাৎর্পয অক্ষুন্ন রাখার বিষয়ে সকলকে দায়িত্ববান হওয়ার আহবান জানান।

উপস্থিত সকলেই একুশে ফেব্রুয়ারিকে যারা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করতে অবদান রেখেছেন তাদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এবং সর্বস্তরে রক্তস্নাত অর্জিত সমৃদ্ধ বাংলা ভাষার সঠিক প্রয়োগে নিবাসী শিশুদের সচেতন হওয়ার আহবান জানান। আলোচনা সভা শেষে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়। এছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে নিবাসীদের মাঝে দিনব্যাপী বিশেষ উন্নত মানের খাবার পরিবেশন করা হয়।

 

মতামত