চট্টলবীর মহিউদ্দিন চৌধুরী একটি চেতনার নাম: হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্ক:

সাবেক ছাত্রনেতা হেলাল আকবর চৌধুরী বাবরের ব্যবস্থাপনায় মাসজুড়ে কর্মসূচির অংশ হিসেবে ১৩তম রমজানেও দুই হাজার মানুষের মধ্যে ইফতার বিতরণ করেছে এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ফাউন্ডেশন। শুক্রবার (১৫ এপ্রিল) বিকেলে নগরের নন্দনকানন ও স্টেশন রোড়ে দুস্থদের মাঝে এসব ইফতার বিতরণ করা হয়।

এসময় হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর বলেন, একজন নেতা মানে সাধারণ মানুষকে জাগ্রত করা। চেতনা ও আদর্শকে মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া। মহিউদ্দিন চৌধুরী তেমন একটি আদর্শের নাম, একটি চেতনার নাম। মহিউদ্দিন চৌধুরীর আদর্শ ছিল সাধারণ মানুষকে ভালোবাসা।

মহিউদ্দিন চৌধুরী সাধারণ মানুষকে খাওয়াতে ভালোবাসতেন উল্লেখ করে বাবর বলেন, মানুষকে খাওয়ানো তার অন্যতম একটি বৈশিষ্ট্য ছিল। মহিউদ্দীন চৌধুরী প্রতি রমজানে হাজার হাজার সাধারণ মানুষকে নিয়ে ইফতার করতেন। আমি তার একজন কর্মী হিসাবে এ ধারাবাহিকতা বজায় রাখার চেষ্টা করে যাচ্ছি।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মো. ফারুক, এম কুতুবউদ্দীন চৌধুরী, নাছির উদ্দীন ফাহিম, মো. তসলিম, কাজী দেলোয়ার হোসেন, মো. জাহেদ, মো. কামরুল হাসান, এসএম তুষার হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন পলাশ, জুবাইয়ের আলম আশিক, জাহেদ হোসেন সাইমন, আব্দুল্লাহ আল সাইমন, নাজিম উদ্দীন, মোস্তফা তারেক, মনির চৌধুরী, ইয়াছির আরফাত রিকু ও ফারহান উদ্দিন খান।

প্রতিদিন মহিউদ্দিন চৌধুরী ফাউন্ডেশনের ব্যানারে দুই হাজার অসহায়কে ইফতার আর সেহেরি দিয়ে যাচ্ছেন হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর।

করোনা ভাইরাসের কারণে পুরো দুনিয়া যখন নিস্তব্ধ। ঠিক তখনই নগরের হাজারো মানুষকে খাদ্য আর চিকিৎসা সেবা দিয়ে পাশে দাঁড়িয়ে সুনাম কুড়িয়েছিল মহিউদ্দিন চৌধুরী ফাউন্ডেশন। আর এ কাজের সার্বিক আঞ্জাম দিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর।

নগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও নগর যুবলীগ নেতা নুরুল আজিম রনি বাংলানিউজকে বলেন, আমরা প্রতিদিন মহিউদ্দিন চৌধুরী ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে নগরের দুই হাজার অসহায় গরিব মানুষকে ইফতার ও সেহেরি দিচ্ছি। এ পর্যন্ত শুধু রমজানেই ২০ হাজার অসহায়কে ইফতার ও সেহেরি দিয়েছি। পুরো রমজান আমাদের এ কার্যক্রম চলমান থাকবে।

মতামত