বিজয় দিবসে জন্ম নেওয়া নবজাতক ও প্রসূতি মা’কে উপহার ও ঔষধ দিল চমেক ইচিপ

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্ক:

লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত মুক্তিযুদ্ধের বিজয় বীর বাঙালির অহংকার, সেই অহংকারকে সমুন্নত রাখতে বীর বাঙালির প্রচেষ্টার শেষ নেই তারই ধারাবাহিকতায় মহান বিজয় দিবস ২০২২ উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং মুক্তিযুদ্ধে সকল শহীদদের স্মরণে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদ, ২০২২-২৩ ডা. সৌমিক-ডা. আরাফ কার্যকরী পরিষদ ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ শাখার পক্ষ থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৬ই ডিসেম্বর জন্ম নেয়া সকল নবজাতক শিশুকে বিজয় দিবসের উপহারস্বরুপ তোয়ালে, মগ, গোলাপ ফুল এবং মায়েদের প্রসব পরবর্তী আয়রন-ক্যালসিয়াম-ভিটামিনের চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে সাপ্লিমেন্ট এবং মাল্টিভিটামিন ঔষধ প্রদান করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদ ২০২২-২৩ ,চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এর সভাপতি ডা. সৌমিক বড়ুয়া, সাধারণ সম্পাদক ডা. মুশফিকুন ইসলাম আরাফ, সিনিয়র সহ-সভাপতি ডা. মোঃ তানজির হোসেন, সহ সভাপতি ডা. বিক্রমাদিত্য সেন জয়, ডা. অনুপম দেবনাথ, ডা. অনীক রয়, ডা. আশিক, ডা. গালিব, ডা. তাফসির এবং চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে ফাহাদুল ইসলাম, আতাউল্লাহ বোখারী, আ ন ম বায়েজিদ, আরেফিন শামীম, জামশেদুল আলম, জামিল উদ্দিন খান, মোঃ ফয়েজ উল্লাহ, মোঃ আরিফুল ইসলাম, সুমিত চক্রবর্তী, সাজু দাশ সহ আরো অনেকে।

আয়োজনটি সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদ, ২০২২-২৩ এর সভাপতি ডা. সৌমিক বড়ুয়া।

তিনি আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের বিজয় আমাদের বীর বাঙালির অহংকার, বাঙালির চিরদিনের গৌরব, অসমসাহস, বীরত্ব ও আত্মদানে মহিমান্বিত অর্জন মুক্তিযুদ্ধের বিজয়ের দিন আজ। ১৯৭১ সালের এই দিন দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী মরণপণ যুদ্ধের শেষে বিজয় ছিনিয়ে এনেছিল বীর বাঙালি। পাকিস্তানি হানাদার বর্বর ঘাতক সেনাবাহিনী অবনত মস্তকে অস্ত্র নামিয়ে রেখে গ্লানিময় আত্মসমর্পণে বাধ্য হয়েছিল ঢাকার ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমানের সোহরাওয়ার্দী উদ্যান)।

বিশ্ব মানচিত্রে লাল-সবুজের পতাকার স্থান পাওয়ার দিন আজ। যেসব বীর সন্তানের প্রাণের বিনিময়ে এই পতাকা ও মানচিত্র এসেছে, তাঁদের শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়েই এই দিবসের মহিমা প্রকাশ করার দিন, সুস্থভাবে বেঁচে থাকুক দেশের প্রতিটি মা এবং নবজাতক, এটিই হোক আজকের বিজয় দিবসের প্রত্যাশা।

মতামত