ই-পেপার | সোমবার , ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
×

কুচকাওয়াজে এবারো প্রথম এবং ব্যান্ড বাদনে বিশেষ সম্মাননা কোয়ান্টাম কসমো স্কুল

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্ক:

বিজয় দিবসে চট্টগ্রাম, বান্দরবান ও লামায় কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের ৫ শতাধিক শিক্ষার্থীর মনোমুগ্ধকর পার্ফরম্যান্স মুগ্ধ করেছে দর্শনার্থীদের।

১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসে দেশের ৩টি স্থানে চট্টগ্রাম, বান্দরবান ও লামায় কুচকাওয়াজ ও ব্যান্ড বাদনে মনোমুগ্ধকর পার্ফরম্যান্স দেখাল কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী। বরাবরের মতো এবারো তারা কুচকাওয়াজে প্রথম এবং ব্যান্ড বাদনে বিশেষ সম্মাননা অর্জন করে।

এবছর চট্টগ্রামের এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে আয়োজিত কুচকাওয়াজ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের ৩৮ জন মেয়ে শিক্ষার্থী। বরাবরের ন্যায় এবারো তারা প্যারেডে বিশেষ ক্যাটাগরিতে প্রথম হয়।

এছাড়াও এই স্কুলের ৬৯ জনের ছেলেদের ব্যান্ড টিম দেশাত্মবোধক বিভিন্ন গানের ব্যান্ড বাদন প্রদর্শন করে মুগ্ধ করে আগত হাজার হাজার দর্শককে। এজন্যে তাদের বিশেষ সম্মাননা পুরস্কার প্রদান করা হয়।

পুরস্কার দেয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার তোফায়েল ইসলাম, জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফকরুজ্জামান, মেট্রপলিটন পুলিশ কমিশনার কৃষ্ণপদ রায়, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিয়াইজি নুরে আলম মিনা ও জেলা পুলিশ সুপার এম শফিউল্লাহ।

বান্দরবান জেলা স্টেডিয়ামে জেলা প্রশাসন আয়োজিত কুচকাওয়াজে প্রাথমিক গ্রুপে ও ডিসপ্লেতে প্রথম হয় কোয়ামটাম কসমো স্কুল ও কলেজের জুনিয়র দল।

এছাড়াও ব্যান্ড বাদনে বিশেষ পারদর্শিতা পুরস্কার অর্জন করে কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের ৪২ জনের ব্যান্ড টিম। এবছর বান্দরবানে কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের মোট ২১৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন বান্দরবান জেলা প্রশাসক শাহ্ মোজাহিদ উদ্দিন, পুলিশ সুপার সৈকত শাহীন ও চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুবুর রহমান।

লামা উপজেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত কুচকাওয়াজ প্রতিযোগিতায় জুনিয়র ও সিনিয়র গ্রুপ এবং ডিসপ্লেতে প্রথম হয় স্কুলটির শিক্ষার্থীরা। এখানেও তারা সকল স্কুলের কুচকাওয়াজ শেষে বিশেষ ব্যান্ড বাদন প্রদর্শন করে। এবার লামায় স্কুলটির মোট ২০২ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মোস্তফা জামাল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শান্তুনু কুমার দাশ, পৌরসভা মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম ও উপজেলা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত রিপোর্ট